কা’শ্মীরিদের র’ক্ষায় পাকিস্তানের সৈন্য পাঠানো উচিত: স্বাধীনতাকামী কমান্ডার সালাহউদ্দিন

ইমান২৪.কম: ভারতের বিরুদ্ধে লড়াইরত ডজনখানেক গ্রুপকে নিয়ে গঠিত একটি জোটের প্রধান সৈয়দ সালাহউদ্দিন বলেন, রোববার বলেছেন যে জাতিসংঘ যদি শান্তিরক্ষী না পাঠায় তবে কাশ্মীরের জনগণকে রক্ষার জন্য পাকিস্তানের সৈন্য পাঠানো উচিত।

তিনি বলেন, প্রথম ইসলামি পরমাণু শক্তি পাকিস্তানের সশস্ত্র বাহিনীর দায়িত্ব হলো এই ভূখণ্ডের লোকজনকে সামরিকভাবে সহায়তা করা।

গত ৫ আগস্ট ভারত সরকার কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করার প্রেক্ষাপটে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ওপর ঘরোয়াভাবে চাপ বাড়ার বিষয়টিই প্রকাশিত হয়েছে তার এই মন্তব্যে।

ভারতীয় পদক্ষেপের বিরুদ্ধে ইমরান খান এখন পর্যন্ত বৈশ্বিক কূটনৈতিক কার্যক্রমই চালিয়ে যাচ্ছেন। পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের রাজধানী মোজাফফরাবাদে শত শত লোকের এক সমাবেশে সালাহউদ্দিন বলেন, এখন পরীক্ষার সময়।

কেবল কূটনৈতিক ও রাজনৈতিক সমর্থনে কাজ হবে না। ভারতের ওই পদক্ষেপের ফলে ভারতীয় সংবিধানে থাকা কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল হয়ে গেছে। এর ফলে ভারতের অন্যান্য এলাকার লোকজন সেখানে গিয়ে ভূ-সম্পত্তি ক্রয় করতে পারবে।

ভারত সরকার বলছে, কাশ্মীরের উন্নয়নের ব্যবস্থা করার জন্যই এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। তবে এই পদক্ষেপে ক্ষুব্ধ হয়েছে কাশ্মীরের লোকজন। ৫ আগস্টের পর থেকে টেলিফোন লাইন, ইন্টারনেট, টেলিভিশন নেটওয়ার্ক বন্ধ রয়েছে।

লোকজনের চলাচলের ওপর বিধিনিষেধ রয়েছে। সালাহউদ্দিন বলেন, পাকিস্তান সরকারের কঠোর পদক্ষেপের ফলেই তার গ্রুপ কিছু করতে পারছে না। তিনি বলেন, পাকিস্তান সরকার ওইসব পদক্ষেপের ফলে আমরা ভারতের বিরুদ্ধে সশস্ত্র প্রতিরোধ সৃষ্টি করতে পারছি না।

পাকিস্তানের কর্মকর্তারা বলছেন, সরকার দায়িত্বশীলতার সাথে কাজ করছে। ভারতের বিরুদ্ধে প্রক্সি চালাতে বিদ্রোহীদের পাঠানোর প্রলোভন প্রত্যাখ্যান করেছে পাকিস্তান।

ফেসবুকে লাইক দিন