মহাসড়ক অবরোধ করে পোশাক শ্রমিকদের আন্দোলন, ১২ কিলোমিটার যানজট

ইমান২৪.কম: নারায়ণগঞ্জে বেতন ও বোনাসের দাবিতে ঢাকা-চট্টগ্রাম ও ঢাকা-সিলেট মহাসড়ক অবরোধ করেন এপেক্স অ্যান্ড সিনহা গ্রুপের শ্রমিকরা। এ সময় দুই মহাসড়কেই ১২ কিলোমিটার এলাকাজুড়ে যানজট তৈরি হয়।

বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) সকাল সাড়ে ১০টা থেকে সোনারগাঁও উপজেলার কাঁচপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত অবরোধ চলছে।

হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মনিরুজ্জামান বলেন, সকালে হঠাৎ করে পোশাকশ্রমিকরা বেতন-বোনাসের দাবিতে রাস্তায় অবরোধ শুরু করলে যানজট তৈরি হয়। আমরা চেষ্টা করছি তাদের সরিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করতে।

আরো পড়ুন>> ছিনতাই হওয়া পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানের মোবাইলের খোঁজ এখনও মেলেনি। গত ৩০ মে রাজধানীর বিজয় সরণির ট্রাফিক সিগন্যালে মোবাইল ছিনতাই হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত চারজনের হাত বদল হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। তবে পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করতে পারলেও সর্বশেষ ব্যক্তির খোঁজ এখনও পায়নি। ফলে পরিকল্পনামন্ত্রীর মোবাইলটি উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

মোবাইলটি চার দফায় চারজনের কাছে বিক্রি করা হয়েছে। সর্বশেষ বিক্রেতা ৩০ হাজার টাকা মোবাইলটি কিনেছেন। মোবাইল ছিনতাই হওয়ার ঘটনায় পরিকল্পনামন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী কাফরুল থানায় একটি মামলা করেছেন। বুধবার (০৭ জুলাই) রাতে এ বিষয়ে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশের মিরপুর বিভাগের উপকমিশনার আ স ম মাহতাবউদ্দিন গণমাধ্যমকে বলেন, মন্ত্রীর হাত থেকে যে ব্যক্তি মোবাইল ছিনতাই করেছে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

সে মোবাইলটি আরেকজনের কাছে বিক্রি করেছিল। তাকেও গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এভাবে তিনজন গ্রেপ্তার করা হয়েছে। হাতিরপুলের একটি দোকান থেকে ‘আইফোন-এক্স’মডেলের মোবাইলটি আরেকজনের কাছে বিক্রি করা হয় ২৫ থেকে ৪০ হাজার টাকার মধ্যে। ছিনতাইকারী, দোকানিসহ মোবাইলটি প্রথম যে তিনজনের হাতে গেছে, তারা সবাই এখন কারাগারে আছেন।

পুলিশ কর্মকর্তা মাহতাবউদ্দিন আরও বলেন, মন্ত্রীর মোবাইলটি দোকান থেকে যার কাছে বিক্রি করা হয়েছে, তার বিষয়ে কোনো তথ্য ওই দোকানির কাছে নেই। এ নিয়ে গণমাধ্যমে খবর প্রকাশ হওয়ায় সর্বশেষ ক্রেতা হয়তো জেনে গেছেন, এটা মন্ত্রীর ফোন। তাই তিনি মোবাইল বন্ধ রেখেছেন। সেই কারণে এখনও পুলিশ মোবাইলটি উদ্ধার করতে পারেনি।

ফেসবুকে লাইক দিন