ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে ‘রাজাকার পরিবার’ বললেন এমপি একরাম

ইমান২৪.কম: বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের পরিবারকে ‘রাজাকার পরিবার’ বলে আখ্যায়িত করেছেন নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্নচর) আসনের সংসদ সদস্য ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক একরামুল করিম চৌধুরী।

বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১২টা ১০ মিনিটের সময় তিনি তার ভেরিফাইড ফেইসবুক আইডি থেকে ফেইসবুক লাইভে এসে এ কথা বলেন। সেই সাথে জেলা আওয়ামী লীগের নতুন কমিটি না পেলে আগামী কয়েকদিনের মধ্যে এসব নিয়ে কথা বলা শুরু করবেন বলেও হুমকি দেন তিনি।

২৭ সেকেন্ডের এই ভিডিও ক্লিপে তিনি বলেন, দেশী মানুষ, আসসালামু আলাইকুম। আমি কথা বললেতো মির্জা কাদেরের বিরুদ্ধে কথা বলবো না, আমি কথা বলবো ওবায়দুল কাদেরের বিরুদ্ধে। একটা রাজাকার ফ্যামিলির লোক এই পর্যায়ে আসছে তার ভাইকে শাসন করতে পারেনা। এগুলো নিয়ে আমি আগামী কয়েকদিনের মধ্যে কথা বলবো। আমার যদি জেলা কমিটি না আসে তাহলে আমি এটা নিয়ে শুরু করবো।

তার ফেইসবুক আইডি ঘুরে দেখা যায়, তাৎক্ষণিক তিনি তার ফেইসবুক আইডি থেকে লাইভ ভিডিওটি সরিয়ে নেন। এর আগেই কয়েক মিনিটের মধ্যে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে তার ভিডিও বক্তব্যটি ভাইরাল হয়ে যায়।

একরামুল করিম চৌধুরী এমপির মুঠেফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, ভিডিও সরিয়ে নিলেও তিনি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের পরিবারের বিরুদ্ধে যে বক্তব্য দিয়েছেন তা সত্য এবং তিনি সত্য কথা বলেছেন। আপনারা গণমাধ্যম কর্মিরা খবর নিলে জানতে পারবেন তার পরিবারে কারা রাজাকার ছিল।

তবে ওবায়দুল কাদের এমপি একজন মুক্তিযোদ্ধা। দীর্ঘদিন থেকে তার ছোট ভাই আবদুল কাদের মির্জা বিভিন্ন পর্যায়ের আওয়ামী লীগ নেতাদের নিয়ে এলোমেলো বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। কিন্তু তিনি তার ভাইকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারেন না, এ জন্য তিনি এসব কথা বলেছেন।

তবে শুক্রবার সকালে ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই বসুরহাট পৌর মেয়র আবদুল কাদের মির্জা জানান, মুক্তিযুদ্ধে আমাদের পরিবার ও আমার পিতার যথেষ্ট অবদান রয়েছে। কাদের সাহেব সম্মুখের মুক্তিযুদ্ধা।

বরং একরাম চৌধুরীর পরিবারের সদস্যরা বার বার দলের সাথে ও দলের নেতাদের সাথে বেইমানি করেছে। আমাদের পরিবারে কে রাজাকার তার প্রমাণ দিতে হবে তাকে। না হয় জনতার আদালতে তার বিচার হবে, না হয় আমি অপরাধী হলে আমার বিচার হবে। আমি সত্য কথা বলায় এখন আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে নানাভাবে ষড়যন্ত্র শুরু হয়েছে। আমি মৃত্যুর আগ পর্যন্ত সত্য বলে যাবো। আপনারা খবর নিন, কে কেমন, সত্য তুলে ধরার জন্য আপনাদের প্রতি আমার অনুরোধ রইলো।

এদিকে ইতিমধ্যে একরামুল করিম চৌধুরীর এ বক্তব্যের বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। স্থানীয় ও জাতীয় পার্যায়ের আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা এ নিয়ে নানা মন্তব্য করছেন। দলের সাধারণ সম্পাদকের পরিবার নিয়ে আওয়ামী লীগের এমপির করা মন্তব্য নিয়ে চলছে নানা বিশ্লেষণ।

ফেসবুকে লাইক দিন