এবার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে তালেবানের সঙ্গে বৈঠক করবে যুক্তরাষ্ট্র

ইমান২৪.কম: কাতারের রাজধানী দোহার পর এবার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে তালেবানের সঙ্গে বৈঠক করবে যুক্তরাষ্ট্র। আগামী সপ্তাহে এই বৈঠকের কথা নিশ্চিত করেছে তালেবান। যদিও চলতি মাসের শেষ দিকে দোহায় এই দুই পক্ষের মধ্যে আরেকদফা বৈঠকের কথা রয়েছে।

টুইন টাওয়ারে হামলার পর সন্ত্রাসবাদে মদদের অভিযোগে আফগানিস্তানের তৎকালীন কট্টর ইসলামপন্থি শাসকগোষ্ঠী তালেবান সরকারের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান চালায় যুক্তরাষ্ট্র। ২০০১ সালে সেই যুদ্ধ শুরুর দেড় যুগ পেরিয়ে গেলেও আফগানিস্তান থেকে তালেবান নির্মূল করতে পারেনি যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির সহায়তায় একটি সরকার পরিচালিত হলেও তালেবান এখনও আফগানিস্তানের বড় অংশ নিয়ন্ত্রণ করে।

এ অবস্থায় চলমান যুদ্ধের ইতি টানতে তালেবানের সঙ্গে সম্প্রতি আলোচনা শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্র। দোহায় চলছে সেই আলোচনা। এই আলোচনা চলাকালেই রাশিয়ার রাজধানী মস্কোতে আফগান শীর্ষ রাজনৈতিক ও তালেবানের মধ্যে আরেকদফা আলোচনা হয়। সেই ধারাবাহিকতায় এবার আফগান যুদ্ধের গুরুত্বপূর্ণ অংশীদার পাকিস্তানের রাজধানী ইসলামাবাদে আলোচনার সংবাদ আসল।

যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্ট বলেছে, তারা আলোচনার বিষয়টি শুনেছে। তবে কোনো দিক থেকে আনুষ্ঠানিক আমন্ত্রণ পায়নি। এই আলোচনায় কাবুলে যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক রাষ্ট্রদূত জালমি খালিজাদ দেশিটির প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করছেন। বৈঠকের বিষয়ে তালেবান মুখপাত্র জাবিউল্লাহ মুজাহিদ বলেছেন, তারা পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের সঙ্গেও গুরুত্বপূর্ণ আলোচনায় অংশ নেবেন।

যেখানে তারা আফগান-পাকিস্তান সম্পর্ক নিয়ে কথা বলবেন। তবে ইসলামাবাদ কর্তৃপক্ষ বৈঠকের বিষয়ে এখনো আনুষ্ঠানিকভাবে কিছু জানায়নি। তালেবান বলেছে, আগামী ২৫ ফেব্রুয়ারি দোহায় ‍যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আরেকদফা বৈঠক হবে।

তবে সেই বৈঠকে খালিজাদ থাকবে কি না নিশ্চিত করেননি ওই তালেবান নেতা। আফগানিস্তানে শান্তি ফেরাতে যে ছয়টি দেশকে অংশীদার করতে চান খালিদ তার মধ্যে পাকিস্তান একটি। কারণ ২০০১ সালে ক্ষমতাচ্যুত হওয়ার আগে তালেবান সরকারকে স্বীকৃতি দেয়া দেশের মধ্যে পাকিস্তান ছিল।

আরও পড়ুন: গরুর ঋণ কোনো দিন শোধ করতে পারব না: নরেন্দ্র মোদি

বাংলাদেশের পদ্মার মা ইলিশ সরিয়ে নিতে ভারতের নতুন 

ফেসবুকে লাইক দিন