এবার আমিরাতের আকাশে ভারতের যুদ্ধবিমান

ইমান২৪.কম: সংযুক্ত আরব আমিরাতের সঙ্গে আরও মজবুত হচ্ছে ভারতের সম্পর্ক। এবার দেশটিতে শক্তি প্রদর্শন করবে ভারতীয় বিমানবাহিনীর সুখোই যুদ্ধবিমান। খবরে বলা হয়, ‘ডেজার্ট ফ্ল্যাগ’ নামের মহড়ায় অংশ নিতে বুধবার অমিরাত যাচ্ছে ভারতীয় ছয়টি সুখোই-থার্টি এমকেআই এবং দুটি সি-সেভেনটিন বিমান। ফ্রান্স, যুক্তরাষ্ট্রসহ ওই মহড়ায় অংশ নেবে ১০টি দেশ।

প্রসঙ্গত, মোদি আমলে আরব আমিরাতের সঙ্গে সম্পর্ক মজবুত করার চেষ্টা করছে নয়াদিল্লি। গতবছর ফ্রান্স থেকে ভারতে আসার সময় রাফালে যুদ্ধবিমানগুলিতে মাঝ আকাশে জ্বালানি ভরে দেয় আমিরাতের ট্যাংকার বিমান।

এর ফলে দুই দেশের কৌশলগত ও সামরিক সম্পর্কও অনেকটা মজবুত হয়েছে। ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি নৌমহড়ায় অংশ নিতে আমিরাত গিয়েছিল ভারতীয় নৌবাহিনীর রণতরী ‘প্রলয়’। ন্যাভডেক্স ২০২১ এবং ইনডেক্স ২০২১ নামের সামরিক প্রদর্শনীতে অংশ নেয় জাহাজটি। ২০১৭ সালে আবুধাবির যুবরাজ মোহাম্মদ বিন জায়েদ আল নাহিয়ানের ভারত সফরকালে দুই দেশের মধ্যে কৌশলগত সম্পর্কের সূচনা হয়।

তারপর ২০১৮ সালে ‘গাল্ফ স্টার-ওয়ান’ শীর্ষক যৌথ নৌমহড়ায় অংশ নেয় দুই দেশ। চলতি বছরের শেষের দিকেও ফের নৌমহড়া চালাবে সংযুক্ত আরব অমিরাত ও ভারত।

ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং জানিয়েছেন, সাগরে সহযোগিতা বজায় রাখতে লাগাতার আবুধাবির বন্দরে যাতায়াত চলছে ভারতীয় রণতরীগুলির। উল্লেখ্য, ২০০২ সালের ১৮ ডিসেম্বর ভারতীয় নৌবাহিনীতে যুক্ত হয় ‘প্রলয়’।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম মারফত জানা গেছে, প্রলয়ে রয়েছে ৭৬ দশমিক ২ মিলিমিটারের মাঝারি পাল্লার অত্যাধুনিক কামান। এছাড়া রয়েছে, দূরপাল্লার ভূমি থেকে ভূমিতে আঘাত হানতে সক্ষম মিসাইল। প্রতিপক্ষের ক্ষেপণাস্ত্রকে ধ্বংস করতে ও নিজেকে বাঁচাতে অত্যন্ত আধুনিক ‘চাফে সিস্টেম’। শত্রুর ছোঁড়া মিসাইলকে বিভ্রান্ত করে দিতে পারে এ অত্যাধুনিক সিস্টেম।

ফেসবুকে লাইক দিন