হঠাৎ ছাত্র বিক্ষোভে উত্তাল হাটহাজারী মাদ্রাসা

ইমান২৪.কম: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের সাবেক সিনিয়র নায়েবে আমির মুফতি ইজহারুল ইসলামের ছেলে হারুন ইজহারের গ্রেফতারের সংবাদে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেছে হাটহাজারী মাদ্রাসার ছাত্ররা।

পরে রাত ১০টার পর হারুন ইজহার মাদ্রাসায় আসলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, ফটিকছড়ির নাজিরহাট মাদ্রাসা নিয়ে গোপন বৈঠক করার সময় সোমবার সন্ধ্যায় স্থানীয়দের অভিযোগের ভিত্তিতে নাজিরহাটের একটি বাসা থেকে হারুন ইজহারসহ কয়েকজনকে আটক করে পুলিশ।

পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে তাদেরকে ছেড়ে দেয়া হয়। ফটিকছড়ি থানার ওসি (তদন্ত) রবিউল হোসেন নিশ্চিত করেছেন। রাত সাড়ে ১০টার দিকে বিষয়টির ব্যাপারে হেফাজত নেতা মাওলানা মীর ইদরিস বলেন, আমরা ৮ জন সফরসঙ্গী একটি গুরুত্বপূর্ণ কাজে পার্শ্ববর্তী ফটিকছড়ি উপজেলার বাবুনগর উদ্দেশে রওনা হচ্ছিলাম।

পথিমধ্যে মাগরিবের নামাজের পর লেখক ও গবেষক গোলাম রাব্বানী ইসলামাবাদীর বিশেষ অনুরোধে চা পানের জন্য তার বাসায় কিছুক্ষণ অবস্থান করি। খবর পেয়ে গোয়েন্দা সংস্থার ২ জন সদস্য গোলাম রাব্বানীর বাসায় আসে। এ সময় তারা আমাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ তোলে আমরা নাকি গোপন বৈঠক করছি।

বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়ে গেলে গোলাম রব্বানীর বাসার বাইরে লোকজন ভিড় করে এবং কে বা কারা হঠাৎ আমাদের গ্রেফতারের দাবিতে মিছিল করতে শুরু করে। ঘটনার খবর পেয়ে ফটিকছড়ি থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে আমাদেরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।

পরে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে থানা পুলিশ সবাইকে সসম্মানে ছেড়ে দেয়। এদিকে হারুন ইজহারকে আটকের বিষয়টি ছড়িয়ে পড়লে হাটহাজারী মাদ্রাসার কয়েক’শ ছাত্র বিক্ষোভ করে। তবে তাদের গ্রেফতার করা হয়নি খবর পেয়ে পরিবেশ কিছুটা শান্ত হয়।

পরে রাত ১০টার দিকে একটি গাড়িতে করে হাটহাজারী মাদ্রাসায় এসে প্রবেশ করেন মুফতি হারুন ইজহার এবং হেফাজত নেতা মীর ইদরিছ। এসময় তারা ছাত্রদের শান্ত হওয়ার আহ্বান জানালে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। হাটহাজারী মাদ্রাসা মাঠে দেয়া বক্তৃতায় হারুন ইজহার হেফাজত মহাসচিব আল্লামা জুনায়েদ বাবুনগরীকে ধন্যবাদ জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন