একজনের লাশ পোড়াতে গিয়ে মরলো ১৯ জন

ইমান২৪.কম: ভারতের শ্মশানঘাট প্রাঙ্গণের আশ্রয় কেন্দ্রের ছাদ ধসে নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৯ জনে দাঁড়িয়েছে। আহত আরও অন্তত ১৯ জন চিকিৎসাধীন। রোববার (৩ জানুয়ারি) দেশটির উত্তরাঞ্চলীয় এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানায় পুলিশ।

ডিভিশনাল কমিশনার আনিতা সি মিশ্রা বলেন, উত্তর প্রদেশ রাজ্যের গাজিয়াবাদ জেলায় বৃষ্টি থেকে বাঁচার জন্য ওই আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছিলেন অন্তত ৪০ জন। ওই সময় আশ্রয় কেন্দ্রের ছাদ ধসে পড়ে। এতে হতাহতের ঘটনা ঘটে।

ভবনটি যখন ধসে পড়ে তখন শ্মশানে মরদেহ পোড়ানো হচ্ছিল। আশ্রয় নেয়া লোকজন মৃত ব্যক্তির আত্মীয়-স্বজন, প্রতিবেশী।

ছাদ ধসের কারণ তাৎক্ষণিকভাবে জানা যায়নি। দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে তদন্তের পরিকল্পনা করছে কর্তৃপক্ষ। মিশ্রা বলেন, আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখবো। যারা জড়িত তাদের যতো তাড়াতাড়ি সম্ভব খুঁজে বের করবো। নির্মাতা প্রতিষ্ঠান, কর্মকর্তা কিংবা পৌরসভার কর্মী যারাই জড়িত থাকুক না কেনো।

স্থানীয় পুলিশ প্রধান আইরাজ রাজা বার্তা সংস্থা ডিপিএ’কে বলেন, শ্মশান প্রাঙ্গণের আশ্রয় কেন্দ্রের ছাদটি ৩০ মিটার লম্বা। এটি ধসে পড়লে ৩৮ জন আটকা পড়েন। দুর্ঘটনাস্থল এবং হাসপাতালে নেয়ার পথে ১৯ জন মারা যান।

রাজা বলেন, বাকি ১৯ জনকে হাসপাতালে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা তার। কারণ, আহতদের মধ্যে কয়েকজনের অবস্থা গুরুতর।

পুলিশ জানায়, উদ্ধারকারীরা ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে নিচে কেউ আটকে আছেন কি না তা অনুসন্ধান করছেন।

স্থানীয় কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, তারা একটি তদন্ত শুরু করেছেন। প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, যাদের গাফলতি পাওয়া যাবে, তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি, রাষ্ট্রপতি রাম নাথ কোবিন্দ হতাহতের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন। রাজ্যের সংস্থাগুলোকে ক্ষতিগ্রস্ত পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

ফেসবুকে লাইক দিন