এই প্রথম হোয়াইট হাউসে ট্রাম্পের ইফতারের আয়োজন

প্রথমবারের মতো মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে ইফতার ও নৈশভোজের আয়োজন করছেন।

ক্ষমতা গ্রহণের পর প্রথম বছর ট্রাম্প এমন আয়োজন থেকে বিরত ছিলেন। এ নিয়ে তুমুল বিতর্কও হয়।

ঐতিহ্য অনুযায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্টরা পবিত্র রমজানে হোয়াইট হাউসে ইফতার ও নৈশভোজের আয়োজন করে আসছিলেন। প্রেসিডেন্ট বিল ক্লিনটনের সময় থেকে হোয়াইট হাউসে মুসলমানদের সম্মানে এই আয়োজন হয়ে আসছিল।

হোয়াইট হাউসের ইফতার ও নৈশভোজে সাধারনত আমেরিকার প্রভাবশালী মুসলমান নেতারা, কূটনৈতিক মিশনের লোকজনসহ আইনপ্রণেতারা যোগ দিয়ে থাকেন।

নির্বাচনী প্রচারকালে ট্রাম্পের মুসলমান-বিরোধী অবস্থান আমেরিকার মুসলমানদের আহত করে। ক্ষমতায় বসার পর কয়েকটি মুসলিম দেশের ওপর ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা দেন ট্রাম্প। এ নিয়ে ট্রাম্পের সঙ্গে আমেরিকার মুসলমানদের সম্পর্ক শীতল হয়।

এর মধ্যে ট্রাম্প তাঁর ক্ষমতার প্রথম বছর হোয়াইট হাউসে ইফতারের আয়োজন না করায় মুসলমানদের পক্ষ থেকে সমালোচনার ঝড় ওঠে। এসব কারণেই হয়তো এবার হোয়াইট হাউসে ইফতার ও নৈশভোজের আয়োজন করেছেন ট্রাম্প।

আগামী ৬ জুন হোয়াইট হাউসে মুসলমানদের ইফতার ও নৈশভোজের আমন্ত্রণ জানিয়েছেন ট্রাম্প।

এর আগে রমজানের শুরুতে বার্তা দিয়েছিলেন ট্রাম্প। এতে তিনি বলেন, মুসলমানরা আমেরিকার সমাজজীবনে ধার্মিকতা যুক্ত করছেন।

আরও পরুনঃ আমেরিকার কারাগারে মুসলিম বন্দীদের ইফতারে শুকরের মাংস খেতে দেয়া হচ্ছে !

>>আমেরিকাকে অবশ্যই সিরিয়ার ভূমি ত্যাগ করতে হবে: প্রেসিডেন্ট আসাদ

ফেসবুকে লাইক দিন