উলামায়ে কেরাম দ্বীন, ইসলাম ও জাতির অতন্দ্র প্রহরী: আল্লামা বাবুনগরী

ইমান২৪.কম: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব আল্লামা বাবুনগরী বলেন, উলামায়ে কেরাম দ্বীন, ইসলাম ও জাতির অতন্দ্র প্রহরী। উলামায়ে কেরামের মধ্যে বিশুদ্ধতা থাকলে ইসলাম টিকে থাকবে, জাতিও সঠিক পথের খোঁজ পাবে। আর উলামায়ে কেরামের মধ্যে বিশুদ্ধতা না থাকলে তার মাধ্যমে দ্বীনের কোনো ফায়দা হবে না।

গতকাল মঙ্গলবার (৫ই মার্চ) জামিয়া ইসলামিয়া লালমাটিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস মাওলানা মামুন আব্দুল্লাহ কাসেমীসহ একদল তরুণ আলেম আল্লামা বাবুনগরীর সাথে সৌজন্য সাক্ষাতে গেলে নসিহত স্বরূপ তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, হাদীসে আছে উলামায়ে কেরাম নবী-রাসূলগণের উত্তরসূরী। কিন্তু হাদীসের পরবর্তী অংশে রাসূলুল্লাহ সাল্লালাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেন, উলামায়ে কেরাম হচ্ছেন নবী-রাসূলগণের ই’লমের উত্তরসূরী। কোনো ধনসম্পদ বা টাকা-পয়সার উত্তরাধীকারী নন। সুতরাং উলামায়ে কেরামদেরকে ই’লমে নববীর যোগ্য উত্তরসূরী হতে হবে।

তিনি বলেন, আমাদের দেওবন্দী ধারার শিক্ষাক্ষেত্রে একটি স্বকীয়তা হলো সরকারি সংযুক্তি না হওয়া। আল্লামা কাসেম নানুতুবী রহ. দেওবন্দী ৮ উসূলের ৭ম উসূলে উল্লেখ্য করেছেন, কওমী মাদরাসায় সরকারের অন্তর্ভূক্তি অনেক ক্ষতিকারক।

তিনি আরো বলেন, বিশেষকরে আমাদের মতো গণতান্ত্রিক দেশে বারবার সরকার পরিবর্তন হয়। কেউ যদি এক পক্ষের সাথে সম্পর্ক রক্ষা করে চলে তাহলে আরেকজন নাখোশ হবেন। যেটা পরবর্তীতে অনেক বড় ক্ষতির কারণ হিসেবে দেখা দেয়। ইমামে আজম আবু হানিফা রহ. এর যুগে ইসলামী খেলাফত(আব্বাসীয়) প্রতিষ্ঠিত ছিলো। তদুপরি তিনি সরকারি কোনো অনুদান গ্রহণে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন। যার কারণে তিনি রাষ্ট্রীয় ষড়যন্ত্রের শিকার হয়ে নানান জুলুম-নির্যাতন ভোগ করেছেন।

আল্লামা বাবুনগরী বলেন, আমরা (উলামায়ে কেরাম) দ্বীনের রাহবার। আমাদের যেমন উম্মতকে সংশোধন করতে হবে, তেমনি নিজেদের মাঝে নিজেদের ‘ইসলাহ’ করতে হবে। যাতে আমাদের মাধ্যমে জাতির কাছে কোনো ভুল বার্তা না পৌঁছে। তাই আমাদের আরো সচেতন হওয়া প্রয়োজন।

প্রসঙ্গত: হেফাজত মহাসচিবের সাথে সাক্ষাতকালে লালমাটিয়া মাদরাসার মুহাদ্দিস ও মারকাযুদ্ দিরাসাতিল ইসলামিয়ার মহাপরিচালক মাওলানা মামুন আব্দুল্লাহ কাসেমী সম্প্রতি বাংলার প্রায় ১ হাজার বছরের ইতিহাসে সর্ব শীর্ষ ১৫ জন মুহাদ্দিস গণের তালিকায় হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের মহাসচিব ও দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম হাটহাজারী’র সহকারী পরিচালক শাইখুল হাদিস আল্লামা জুনাইদ বাবুনগরী ও তাঁর মরহুম পিতা, বিখ্যাত হাদীসগ্রন্থ তানজীমুল আশতাতের প্রণেতা আল্লামা আবুল হাসান চাটগামী রহ. এর অন্তর্ভূক্তির বিষয়টি উল্লেখ্য করেন।

ফেসবুকে লাইক দিন