উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের চীন সফর

চীন সফরে গেলেন উত্তর কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট কিম জং উন। রবিবার থেকে বুধবার পর্যন্ত চারদিনের এক সফরে চীনে যান কিম জং উন । ২০১১ সালে ক্ষমতা গ্রহনের পর প্রকাশ্যে আসা এটাই কিমের প্রথম বিদেশ সফর ।

এই সফরে কিমের সাথে ছিল তার স্ত্রি রি সোল জু । আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে আসা কিমের চীন সফরের গুন্জনের খবরের প্রেক্ষিতে, কিমের চীন সফরের কথা জানালো চীন ।

উত্তর কোরিয়াও তাদের প্রেসিডেন্ট কিম জং উনের চীন সফরের কথা জানিয়েছে বলে খবর বিবিসি ও বার্তা সংস্থা রয়টার্সের।

চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং এর সাথে বৈঠক করেন কিম জং উন । তাদের বৈঠকের ব্যপারে চীনের বার্তা সংস্থা সিনহুয়া জানিয়েছে , শর্তসাপেক্ষে পরমানু অস্ত্র ত্যাগে রাজি উত্তর কোরিয়া। কিম আরও বলেন শান্তিপূর্ন মানসিকতা নিয়ে যদি আমাদের আমন্ত্রনে যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিন কোরিয়া সাড়া দেয় ও যুগপোযোগি প্রদেক্ষেপ গ্রহন করে এবং একটি শান্তিপূর্ন স্থিতিশীল পরিবেশ গড়ে তোলে তাহলে কোরিয়া উপদ্বিপে পরমানু নিরস্ত্রিকরনের সমাধান সম্ভব।

শি জিনপিংকে উত্তর কোরিয়া সফরের আমন্ত্রন জানান কিম। বৈঠক শেষে স্ত্রী রি সোল জুকে নিয়ে মঙ্গলবার বিকেলে বেইজিং ছাড়েন কিম জং উন বলে খবর প্রকাশিত হয় ।

দক্ষিণ কোরিয়ার সেইজং ইনস্টিটিউটে কর্মরত উত্তর কোরিয়া বিষয়ক বিশ্লেষক চিওং সিওং চাং বলেন, কিম জং ইল ছাড়া উত্তর কোরিয়ার আর কোন পদস্থ কর্মকর্তা ঐ ট্রেনে করে বেইজিং যাননি। উত্তর কোরিয়ার নেতার এই সফর কুটনৈতিক ভাবে অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ।  বিশ্লেষকরা মনে করছেন সাংঘর্ষিক অবস্থান থেকে উত্তর কোরিয়া যে কুটনৈতিক অবস্থানে আসতে চায়, এই সফর ঐ পরিবর্তনেরই ইঙ্গিত বহন করে।

ফেসবুকে লাইক দিন