ইসলামী শরীয়ার ওপরে মোদি সরকারের হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করা হবে না : ভারতে তিন তালাক নিষিদ্ধ প্রসঙ্গে

ইমান২৪.কম: ইসলামী শরীয়ার ওপরে নরেন্দ্র মোদি সরকারের অবাঞ্ছিত হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করা হবে না বলে মন্তব্য করেছেন ‘সারা বাংলা সংখ্যালঘু যুব ফেডারেশন’-এর সাধারণ সম্পাদক মুহাম্মদ কামরুজ্জামান। বৃহস্পতিবার গণমাধ্যমকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

মুহাম্মদ কামরুজ্জামান বলেন, ‘তাৎক্ষণিক তিন তালাক নিয়ে কেন্দ্রীয় সরকার যে অধ্যাদেশ জারি করেছে তার প্রতিবাদে আগামী ৩ অক্টোবর পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কোলকাতায় মহাসমাবেশ করে যোগ্য জবাব দেয়া হবে।’

কামরুজ্জামান বলেন, ‘তালাকের মতো মুসলিমদের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে কেন্দ্রীয় মোদি সরকার অনুপ্রবেশ করে যেভাবে স্বৈরাচারী পন্থায় সংসদকে এড়িয়ে অর্ডিন্যান্স জারি করল তা ভারতের স্বাধীনতার ৭১ বছর পরে এক বিরল ঘটনা!

কেননা কোনো ধর্মীয় বিষয়ে সংসদকে এড়িয়ে কেন্দ্রীয় সরকার অর্ডিন্যান্স জারি করবে এটি হচ্ছে ফ্যাসিবাদী উদ্যোগ। সংখ্যালঘু মুসলিমদের নিজস্ব বিষয়ে মোদি সরকার যেভাবে অনুপ্রবেশ করছে, তার তীব্র প্রতিবাদ জানাচ্ছি। একে কোনোভাবেই মেনে নেয়া হবে না এবং বরদাস্ত করা হবে না।’

আরও পড়ুনঃ এক লাখ রোহিঙ্গাকে দুর্যোগপূর্ণ দ্বীপে পাঠাচ্ছে বাংলাদেশ: এনডিটিভি

তিনি বলেন, ‘তালাক বা শরীয়ার কোনো বিষয়েই সংযোজন বা পরিমার্জনের কোনো অবকাশ নেই। কেননা মুসলিমরা যে কানুনে বিশ্বাস করে তা হল ঐশীগ্রন্থ পবিত্র আল কুরআনের কানুন।

শরীয়া আইনকে এড়িয়ে কেন্দ্রীয় সরকারের মন্ত্রিসভায় তৈরি করা কোনো আইনকে মানার জন্য মুসলিম সমাজকে বাধ্য করা হবে তা মোটেও সমর্থনযোগ্য নয়।

এর প্রতিবাদে আগামী ৩ অক্টোবর রাজ্যের ইমাম ও মুসলিম সংগঠনগুলোর পক্ষ থেকে যৌথভাবে কোলকাতায় এক প্রতিবাদ সমাবেশের ডাক দেয়া হয়েছে। এখান থেকেই কেন্দ্রীয় সরকারকে যোগ্য জবাব দেয়া হবে।’

এর পাশাপাশি রাজ্যে বহুমূল্যবান ওয়াকফ সম্পত্তি জবরদখল মুক্ত করা, ইমাম-মুয়াজ্জিনদের ভাতা বৃদ্ধি, মাদ্রাসা সার্ভিস কমিশনের মাধ্যমে শিক্ষক নিয়োগসহ বিভিন্ন ইস্যুতে ওইদিনই পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে স্মারকলিপি দেয়া হবে বলেও মুহাম্মদ কামরুজ্জামান জানান।

আরও পড়ুনঃ বন্দুকের মুখে বিচার বিভাগ নিয়ন্ত্রণে নিয়েছে সরকার : রিজভী

একসময় ফুটপাতে খাবার বিক্রি করতেন, এখন সিঙ্গাপুরের রাষ্ট্রপতি হালিমা ইয়াকুব

ফেসবুকে লাইক দিন