মঞ্চে উঠে চরমোনাই পীরের ওপর হামলার চেষ্টা

ইমান২৪.কম: মানসিক ভারসাম্যহীন এক যুবকের হামলার কবল থেকে অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের আমীর ও চরমোনাই পীর মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

সোমবার (১১ জানুয়ারি) রাতে বরিশাল জেলার বাকেরগঞ্জ উপজেলার শ্যামপুর স্কুল মাঠে স্থানীয় ক্বারিমিয়া-হাসেমিয়া মাদ্রাসার উদ্যোগে আয়োজিত মাহফিলে এ ঘটনা ঘটে। তবে পীর সাহেব তাকে ক্ষমা করে দিয়েছেন বলে জানিয়েছেন দলটির মিডিয়া উপ-কমিটির সদস্য কেএম শরীয়াতুল্লাহ।

এদিকে পুলিশ বলছে, এ ব্যাপারে কোন অভিযোগ পাননি তারা। ওই যুবক মানসিক ভারসাম্যহীন বলেও নিশ্চিত করেছে পুলিশ। ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় মিডিয়া উপ-কমিটির সদস্য কেএম শরীয়াতুল্লাহ জানান, ‘মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখছিলেন পীর সাহেব চরমোনাই মুফতি সৈয়দ মোহাম্মদ রেজাউল করিম।

পীর সাহেবের বয়ান চলাকালে মেহেদী হাসান নামে স্থানীয় এক যুবক হঠাৎ করে মঞ্চে ওঠে। কিছু বুঝে ওঠার আগেই ওই যুবক পীর সাহেবের উপর হামলা করতে উদ্যত হয়। এ সময় আশপাশে থাকা মাহফিল কমিটির নেতৃবৃন্দসহ অন্যান্যরা তাকে নিবৃত্ত করে। এ সময় মুসুল্লিরা তাকে জাপটে ধরে।

কেউ কেউ ওই যুবককে মারধরের চেষ্টা চালায়।’ তবে স্থানীয়রা ওই যুবক মানসিক ভারসাম্যহীন বলার পর পীর সাহেব তাকে ক্ষমা করে দেন বলে জানান কেএম শরীয়াতুল্লাহ। এর দুই দিন আগে স্থানীয় রঙ্গশ্রী ইউনিয়নের চেয়ারম্যান বশির উদ্দিন সিকদারের উপর ওই যুবক হামলা চালায় বলে জানান তিনি।

বিষয়টি পূঁজি করে কোন কোন গোষ্ঠী সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পীর সাহেবকে হেয় প্রতিপন্ন করার চেষ্টা করছে বলেও অভিযোগ করেন কেএম শরীয়াতুল্লাহ। বরিশাল জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শাহজাহান জানান, বাকেরগঞ্জের মাহফিলে চরমোনাই পীর সাহেবের উপর হামলা চেষ্টার কথা তারা শুনেছেন। এ বিষয়ে কোন লিখিত অভিযোগ পাননি। তবে ওই যুবককে বাসায় নিরাপদ হেফাজতে রাখার জন্য তার পরিবারকে বলা হয়েছে।

ফেসবুকে লাইক দিন