শহিদ আবরারের নামে মসজিদ-মাদরাসা উদ্বোধন

ইমান২৪.কম: নির্মম নির্যাতনের শিকার হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন বুয়েটের তড়িৎ ও ইলেক্ট্রনিক প্রকৌশল বিভাগের দ্বিতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী আবরার ফাহাদ। ২০১৯ সালের ওই ঘটনায় দেশব্যাপী নিন্দার ঝড় ওঠে।

আবরারের স্মরণে এবার তার গ্রামের বাড়িতে একটি মসজিদ ও মাদরাসার উদ্বোধন করেছে এলাকাবাসী। গতকাল শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) এটি উদ্বোধন করা হয়। কুষ্টিয়া জেলার কুমারখালীর রায়ডাঙ্গা গ্রামে এই মসজিদটি নির্মাণ করা হয়েছিল আবরারের মৃত্যুর কিছুদিন পরেই।

‘শহিদ’ আবরারের নামে মসজিদ ও মাদরাসাটি করা হলেও গতকালই এর সাইনবোর্ড টাঙিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে উদ্বোধন করা হয়েছে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিরা। এ প্রসঙ্গে একটি স্ট্যাটাস দিয়েছেন আবরার ফাহাদের ছোট ভাই আবরার ফাইয়াজ।

সেখানে তিনি বলেন, ‘আমার ভাইয়ের নামে গ্রামে একটি মসজিদ ও মাদরাসা নির্মাণ করা হচ্ছে। এখানে নিয়মিত নামাজ পড়া ও শিশুদেরকে কোরআন শিক্ষা দেওয়া হয়। পরিকল্পনা রয়েছে এটি পাকা করার। দোয়া করবেন, আল্লাহ যেন এলাকাবাসীর পরিকল্পনাকে কবুল করেন এবং আমার ভাইকে শহিদি মর্যাদা দান করেন।

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালের ৬ অক্টোবর দিবাগত রাতে আবরার ফাহাদকে নির্মমভাবে পিটিয়ে হত্যা করে ছাত্রলীগের বুয়েট শাখার নেতাকর্মীরা। পরদিন আবরারের বাবা বাদী হয়ে চকবাজার থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন।

১৩ নভেম্বর ঢাকার চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে ২৫ জনকে অভিযুক্ত করে মামলার চার্জশিট দাখিল করা হয়। অভিযুক্ত ২৫ জনের মধ্যে এজাহারভুক্ত ১৯ জন এবং এজাহার বহির্ভূত ৬ জন।

ফেসবুকে লাইক দিন