মসজিদের সামনে নাচ: ভুল স্বীকার ও তওবা করেছে আয়োজকরা

ইমান২৪.কম: সখীপুরে মসজিদের সামনে চিত্রনায়িকা মুনমুনের নাচের একটি ভিডিও ভাইরাল হওয়ার পর ফেসবুকে সমালোচনার পর ক্ষমা চেয়েছেন অনুষ্ঠানটির আয়োজকরা।

সোমবার (৭ সেপ্টেম্বর) নৌকা ভ্রমণ কমিটির আয়োজকরা ভুল স্বীকার করে মসজিদটি সংস্কারে সহযোগিতারও আশ্বাস দেন। এর আগে শনিবার বিকেলে মাইক্রোবাস মালিক ও শ্রমিকদের সমন্বয়ে গঠিত আল মদিনা সমবায় সমিতির নেতৃত্বে নৌকা ভ্রমণ শেষে উপজেলার কাকড়াজান ইউনিয়নের পলাশতলী বাজার মসজিদের সামনে নায়িকা মুনমুনের নাচের এই আসর বসানো হয়।

জানা যায়, গত শনিবার চিত্রনায়িকা মুনমুনকে সখীপুর পৌরশহর ও স্থানীয় কিছু লোক উপজেলার পলাশতলীতে নৌকা ভ্রমণে নিয়ে আসে। ভ্রমণ শেষে বাজার মসজিদের সামনে সাউন্ড সিস্টেম বাজিয়ে নায়িকা মুনমুনকে নিয়ে নাচের আসর বসানো হয়।

পরে সেই নাচের ভিডিও ফেসবুকে মুহূর্তেই ভাইরাল হয়। শুরু হয় প্রতিবাদ ও সমালোচনা। নৌকা ভ্রমণ অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান শফিউল ইসলাম কাজি বাদল। তিনি বলেন, ‘আমি আয়োজকদের আমন্ত্রণে সংগঠনের নেতাদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলাম।

নাচের বিষয়ে আমি কিছুই জানি না, পরে শুনেছি। ‘আল মদিনা সমবায় সমিতির সাবেক সভাপতি ও উপজেলা মাইক্রোবাস মালিক সমিতির সভাপতি মো. স্বপন বলেন, ‘এ ঘটনায় আমরা অনুতপ্ত।

ওখানে মসজিদ ঘর আছে বিষয়টি জানা থাকলে এরকম হতোনা। পরে স্থানীয় ভাবে খোঁজ নিয়ে দেখছি বাজারের ওই মসজিদের অবস্থা একেবারে নাজেহাল। ভবিষ্যতে আর যেন মানুষ ওই মসজিদটি চিনতে আমাদের মতো ভুল না করে সে জন্য ইজারাদারদের সঙ্গে যোগাযোগ করে মসজিদটি সংস্কারের জন্য আমাদের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করা হবে।

উপজেলা কওমী উলামা পরিষদের সভাপতি মাওলানা সাইফুল্লাহ বেলালী বলেন, ‘আয়োজক কমিটি ভুল স্বীকার করে তওবা করেছে। তারা ভবিষ্যতে এ ধরনের কাজ আর না করার অঙ্গীকার করেছেন।’ এ দিকে মসজিদের পাশে নাচের জন্য মুনমুনও লাইভে এসে দুঃখ প্রকাশ করে ক্ষমা চেয়েছেন।

ফেসবুকে লাইক দিন