ইনজেকশন দিতেই কাঁপতে কাঁপতে নিথর হয়ে গেল শিশুটি

ইমান২৪.কম: নোয়াখালীর মাইজদীতে একটি বেসরকারি হাসপাতালের বিরুদ্ধে ভুল ইনজেকশোনে এক শিশুর মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছে। ঘটনার প্রতিবাদ করায় মৃত শিশুর পরিবারের সদস্যদের মারধর করেছে মালিকপক্ষের লোকজন।

এ বিষয়ে বুধবার (২৩ ডিসেম্বর) জেলা সিভিল সার্জনের কাছে লিখিত অভিযোগ করেছে ভুক্তভোগী পরিবার। এর আগে, সোমবার রাতে মাইজদীর মেট্রো হাসপাতালে শিশুটির মৃত্যু হয়।

মৃত শিশুর বাবা কবিরহাট উপজেলার চাপরাশিরহাট ইউনিয়নের দয়াল গাজী বলেন, সোমবার সকালে আমার স্ত্রীর প্রসব ব্যথা ওঠায় মেট্রো হাসপাতালে এনে ভর্তি করেন। বিকেলে নরমাল ডেলিভারিতে আমার মেয়ের জন্ম হয়। জন্মের পর থেকে সে সুস্থই ছিল।

সন্ধ্যার দিকে কোনো কিছু না জানিয়ে এক ডাক্তার এসে আমার মেয়েকে ইনজেকশন দেয়। কিছুক্ষণের মধ্যেই শিশুটির শরীরে কাঁপুনি শুরু হয়। কোনো কিছু বুঝে ওঠার আগেই আমার মেয়ে মারা যায়।

তিনি আরো বলেন, ওই চিকিৎসক কোনো কারণ ছাড়াই আমার বাচ্চাকে ভুল ইনজেকশন দিয়েছে। আমার মেয়ের মৃত্যুর জন্য সে দায়ী। বিষয়টি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানালে তারা আমাদের মারধর করে।

এরপর আমরা পুলিশে খবর দিলে তারা পালিয়ে যায়। সুধারাম মডেল থানার ওসি মো. শাহেদ উদ্দিন বলেন, খবর পেয়ে হাসপাতালে পুলিশ পাঠানো হয়েছিল।

ভুক্তভোগী পরিবারটি কোনো লিখিত অভিযোগ দেয়নি। নোয়াখালীর সিভিল সার্জন ডা. মাসুম ইফতেখার বলেন, বৃহস্পতিবার বিকেলে শিশুটির পরিবারের লোকজন একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। এ বিষয়ে তিন সদস্যে তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। কমিটির রিপোর্ট পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ফেসবুকে লাইক দিন