ইভ্যালি বাংলাদেশের অ্যামাজন: ইভ্যালি রাসেল

ইমান২৪.কম: ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান ইভ্যালিকে বাংলাদেশের অ্যামাজন বলে দাবি করেছেন প্রতিষ্ঠানটির ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী মোহাম্মদ রাসেল। শুক্রবার (৯ জুলাই) রাতে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে এমনটা দাবি করেন তিনি। নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকে দেওয়া সেই স্ট্যাটাসে রাসেল বলেন, ছাড় এখন আর মূল বিষয় নয়। এটি (ইভ্যালি) বাংলাদেশের আমাজন। লোকেরা এসওপিতে তাদের পণ্যগুলি দ্রুত পাচ্ছে এবং সর্বনিম্ন ছাড় যথেষ্ট ন্যায্য। আমি আবারও বলছি, পুরাতন সমস্ত অর্ডার খুব দ্রুতই ডেলিভারি করা হবে।

একই রাতে আরও একটি ফেসবুক স্ট্যাটাস দিয়েছেন রাসেল। সেখানে তিনি ইভ্যালিতে বর্তমানে চলমান টিটেন ক্যাম্পেইনের অর্ডারের সংখ্যা ও মোট টাকার পরিমাণ তুলে ধরেছেন। সেই স্ট্যাটাসে রাসেল লিখেছেন, যদি আপনি মনে করেন কাস্টমাররা বিশ্বস্ত নন, তাহলে এই তথ্যগুলো আপনার জন্য। এটি আমাদের আজ রাতের টিটেন ​​এর অভ্যন্তরীণ তথ্য। আমরা সবসময় আমাদের বিবৃতি নিয়ে সৎ ছিলাম।

স্ট্যাটাসে রাসেল আরও লিখেছেন, ইকমার্স বিশ্বজুড়ে অর্থনৈতিক ভূমিকাতে সহায়তা করছে। সরকারের কঠোর পর্যবেক্ষণের সহায়তায় এর আশীর্বাদ দেখতে চলেছে বাংলাদেশ। বাণিজ্য মন্ত্রনালয়ের মাধ্যমে ইকমার্সের নতুন নীতিমালা প্রণয়ন আমাদের জন্য আশীর্বাদস্বরুপ। গ্রাহকদের উদ্দেশ্য রাসেল বলেন, আপনি পণ্যটি না পাওয়া পর্যন্ত আপনার অর্থ আমাদের হাতে থাকবে না। আমাদের সাথেই থাকুন।

একই দিন সন্ধ্যায় নিজের বিদেশ ভ্রমণের নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে রাসেল বলেন, আমি আমার বিদেশ যাওয়া নিষেধাজ্ঞা বিষয়টি পজিটিভলি দেখছি। বাংলাদেশের সব বড় কোম্পানির সাথে আমার সম্পর্ক। হয়তো আমাকে ভালোবাসার জন্য ওনাদের ভয়ের এই বিষয়টা আমাকে বলতেন না। আমরা বিজনেস করেছি সবার সাথেই। এখন ওনারা আরো বেশি কনফিডেনস পাবে।

এখন আমরা অনেকটাই প্রফিট এ বিজনেস শুরু করেছি। নতুন নীতিমালা অনুযায়ী গ্রাহকদের টাকা আমাদের হাতে আসার সুযোগ নাই। এছাড়া তদন্ত করলেই সবাই দেখবেন পুরাতন অর্ডার কি পরিমান ডেইলি যাচ্ছে। বিজনেস ডেভেলপমেন্ট এ লস হয়েছে, সেটা বিজনেস করেই প্রফিট করে ফেলব এর চেয়ে কম সময়ে। কারণ আমাদের ক্রয় মূল্য বাজার মূল্য থেকে অনেক কম।

সরকারের সামগ্রিক কার্যক্রম জনগণের স্বার্থ রক্ষার জন্য। আমি শুধু একটাই রিকোয়েস্ট করব যে আমাদের তদন্ত বিষয়ে অতি উৎসাহ নিয়ে কেউ কোন প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে বলবেন না । আপনাদের রেগুলার কেনাকাটা ইভ্যালি তে করুন।এতেই ইভ্যালির লস এর যৌক্তিকতা আসবে।

স্ট্যাটাসের শেষে রাসেল বলেন, কখনো কোন দেশের মালটিপল ভিসা ছিল না, এখন কোন ভিসা ও নাই এবং কখনো কোন সিটিজেনশীপ এর জন্য এপ্লাই করি নাই। ঘুরতে গিয়েছিলাম কয়েকবার। দেশ আমাদের। আমরা সবাই দেশের জন্যই কাজ করতে চাই। দোয়া রাখবেন।

ফেসবুকে লাইক দিন