আ.লীগ এক হাজার বছর চেষ্টা করলেও ২৮৮ টি আসন পেতে পারে না: কর্নেল অলি

ইমান২৪.কম: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচিত প্রার্থী সংসদে না যাওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন এলডিপির সভাপতি ও বিএনপি নেতৃত্বোধীন ২০ দলীয় জোটের নেতা কর্নেল (অব.) অলি আহমদ। শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেসক্লাবে ‘বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি’ শীর্ষক লেবার পার্টির সংহতি সমাবেশে তিনি এ কথা বলেন।

কর্নেল অলি বলেন, আমরা আশা করবো, বিএনপির যারা নির্বাচিত হয়েছেন, তারা জাতির সাথে বেইমানি ও প্রতারণা করবেন না। সংসদে যাবেন না। তারা সংসদে যদি যায় তাহলে আমরা মনে করবো তারা জাতির সাথে প্রতারণা করেছেন। আমরা যারা নির্বাচন করেছি, যারা জেলে গেছে এবং মেহনত করেছে- তাদের সাথে প্রতারণা করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, জাতীয় ঐক্য যদি চান তাহলে বিভিন্ন দলের নেতাদের সঙ্গে বসে কিভাবে জাতীয় ঐক্য হবে এই আলোচনা করতে অসুবিধাটা কোথায়? আমরা কি দেশ ও জনগণের বিরুদ্ধে কাজ করছি? আমাদের লক্ষ্য যদি এক হয় তাহলে আমরা আলোচনা করে কেনো এগুলো সমস্যার সমাধান করতে পারবো না?

শুক্রবার প্রধানমন্ত্রী জাতীয় ঐক্যের ডাক দিয়েছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, একদিকে পিঠে লাথি দেবেন। আবার বক্তব্যে বললেন, জাতীয় ঐক্য? কিভাবে জাতীয় ঐক্য হবে? তবে নির্বাচনের পরে তো বলতে পারতেন যে, এধরণের নির্বাচন আমি আশা করি নাই।

অলি বলেন, এবার নির্বাচনে হাজার হাজার কোটি টাকা খরচ করেছে। এগুলো আসলো কোথা থেকে? আর এবার যারা নির্বাচন করেছেন, যাদের সম্পদ কয়েক শত গুন বৃদ্ধি পেয়েছে, তাদেরকে দুদকের নোটিশ দেওয়া উচিত। যে এই সম্পদ এ হারে কেনো বৃদ্ধি পেলো।

বিশেষ করে দশম জাতীয় সংসদে যারা সদস্য ছিলেন, কয়েক শত গুন যাদের সম্পদ বৃদ্ধি পেয়েছে, তাদেরকে ডাকা উচিত। শুধু কথায় দুর্নীতি দমন বলবেন, জিরো টলারেন্স বলবেন- আর কর্মকাণ্ডে সেটা হবে না!

আওয়ামী এক হাজার বছর চেষ্টা করলেও ২ শত ৮৮ টি আসন পেতে পারে না বলেও মন্তব্য করেন তিনি।

আওয়ামী লীগ মুক্তিযুদ্ধের হত্যাকারী বলেও মন্তব্য করেন জোটের এই শীর্ষ নেতা বলেন, আমার ছেলেকে হত্যা করার জন্য পরিকল্পনা নিয়েছিলেন সরকার। সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিমকেও হত্যা করার জন্য পরিকল্পনা নিয়েছিলেন। এভাবে সারা বাংলাদেশের বিরোধী দলের অনেক প্রার্থীকে আক্রমণ করেছে।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের কেউ শান্তিতে নেই। এটা কি প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী জন্য ভালো হবে? আমি তো মনে করি, অতি উৎসাহী পুলিশেরাই আওয়ামী লীগের কবর রচনা করেছে। আমরা প্রধানমন্ত্রীর ক্ষতি করি নাই।

লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরানের সভাপতিত্বে সমাবেশে কল্যাণ পার্টির চেয়ারম্যান মেজর জেনারেল (অব.) সৈয়দ মুহাম্মদ ইবরাহিম, বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট জয়নাল আবেদীন, লেবার পার্টির ভাইস চেয়ারম্যান আমিনুল ইসলাম রাজু, এস এম ইউসুফ আলী, সাংগঠনিক সম্পাদক হুমায়ুন কবীর প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

আরও পড়ুন:  ঝালমুড়িওয়ালার ছুরিকাঘাতে যুবলীগ নেতা খুন

বাংলাদেশের নির্বাচন অবশ্যই সঠিক হয়নি: জাতিসংঘ মহাসচিব

অভ্যন্তরীণ কোন্দলে ছাত্রলীগ কর্মীর পায়ের রগ কেটে দিয়েছে প্রতিপক্ষ

সিজার করতে গিয়ে নবজাতককে কেটে ফেললেন চিকিৎসক : আটক ৩

আগামী ১৫, ১৬ ও ১৭ ফেব্রুয়ারি বিশ্ব ইজতেমা : ধর্ম মন্ত্রণালয়ে বৈঠকে সিদ্ধান্ত

ধর্ষকের স্বীকারোক্তি, অথচ মেডিকেল রিপোর্টে ধর্ষণের আলামত না পাওয়ায় মওদুদের বিস্ময়

ফেসবুকে লাইক দিন