আড়ংয়ে চাকরি না পাওয়া সেই যুবকের নতুন ভিডিও ভাইরাল: দিলেন খুশির সংবাদ (ভিডিও)

ইমান২৪.কম: শুধু দাড়ির কারণে আড়ংয়ে চাকরি না পাওয়া ইমরান আরেকটি ভিডিও ছেড়েছেন। ভিডিওটিতে তিনি সবার জন্য একটি খুশির সংবাদ নিয়ে এসেছেন। ভিডিওটিতে দাড়ির রাখার পিছনে কারণও উল্লেখ্য করেছেন।

ভিডিওতে ইমরান হুসাইন লিমন বলেন- ‘আমার গর্ব হচ্ছে যে, বাংলাদেশের মুসলমানদের ইমান এত মজবুত, রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম-এর প্রতি ভালবাসা এত বেশি, যা আমার নিউজ ছড়ানোর মাধ্যমে প্রমাণ পেলো। সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাদের ভালবাসা দেখানোর জন্য। এই ভিডিও করার রিজন হচ্ছে- আমাকে নিয়ে মিথ্যা কিছু নিউজ আসছে, নিউজ কিছুটা এরকম যে, ইমরান জব পেলো আড়ংয়ে। প্রথম কথা হচ্ছে- আমাকে আড়ং থেকে প্রথম দিনই বলা হয়েছিল, আপনি আমাদের এখানে জয়েন্ট করেন, হেড অফিসে বা উত্তরায়।

আমি তখন বলছিলাম যে, আমি আর জব করবো না। বাসা থেকেও না করার জন্য বলা হয়েছে। গতকালে আরেকটি নিউজ দেখলাম- ‘ আড়ং সরি বলেছে, ইমরানকে জব দিয়েছে’। অথচ গতকাল আমার আড়ংয়ের কারো সাথে যোগাযোগ হয়নি। এসব ফেইক নিউজ, কেউ ছড়াবেন না।

আমি একটা খুশির সংবাদ নিয়ে এসেছি। সংবাদটি হলো, শায়খ আহমদুল্লাহ স্যার আমাকে কল করেছিলেন। আমি উনার সাথে কথা বলতে পারাটা অনেক বড় ব্যপার। আমাকে উনি কল করেছেন, সেটাও আমার ভাবতে আশ্চর্য লাগছে। কল করে উনি আমাকে বলেছেন বাংলাদেশের বিশিষ্ট শিল্পপতি এস আলম স্যার আমাকে জব দিতে চেয়েছেন। তারা সিভি চেয়েছেন, আমি সিভি পাঠিয়ে দিয়েছি, আশা করছি শীগ্রই একটা গুড নিউজ আসবে ইনশাআল্লাহ।

অতপর ইমরান সবার উদ্দেশ্য বলেন- ‘যদি এমন কোন সিচুয়েশন আসে, হারাম কিছু করতে হয়, ডিফরেন্ট কিছু আসে, তখন আল্লাহর ওপর তাওয়াক্কুল করে ছেড়ে দাও। যাস্ট ছেড়ে দাও যে, আল্লাহ আছেন, তাঁর ওপর ভরসা করে ছেড়ে দিলাম। আমি সাধারণ একজন ইমরানকে দেখেন, কেথায় ছিলাম, শুধু আল্লাহর উপর ভরসা করে ছেড়ে দিয়েছি, এখন কত জায়গা থেকে আমার জন্য জব আসছে’।

মিডিয়ার কর্মীদের উদ্দেশ্যে ইমরান বলেন- ‘সকলের কাছে অনুরোধ থাকবে, সত্যতা না জেনে এরকম কোন নিউজ আপনারা করবেন না, সত্যটা জেনে ভিডিও বানান বা নিউজ করেন, কোন বিষয় নিয়ে মিথ্যা অপপ্রচার করার কোন মানে নাই। সবশেষে তিনি অনেকের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছন, যারা শুরু থেকেই তাকে এ ব্যাপারে সাপোর্ট দিয়ে যাচ্ছিলেন’।

দাড়ি রাখার পিছনে মূল কারণ বলতে গিয়ে ইমন বলেন- ‘কাজি কে এম ইউসুফ জাহান, আমার প্রিয় শায়েখ, একবার আমাদের এলাকায় এসেছিলেন। তখন আমার দাড়ি কেবল উঠছিলো। সেখান থেকে দাড়ি এবং রাসুলের সুন্নত সম্পর্কে মনে অনেক কথা গেঁথেছিল যে, দাড়ি ছাড়া পুরুষ মানুষ হয় না, নেকাব ছাড়া নারী হয় না, হারাম বর্জন না করলে মুসলমান হওয়া যায় না।’

আর আমার ভিডিও বানানোর পিছনে কাউকে ছোট করার ইচ্ছা ছিলো না। শুধুমাত্র আমি কষ্ট থেকেই ভিডিও করা। জীবনের ফাস্ট টাইম কিছু করতে যাচ্ছি, আর এরকম প্রতিবন্ধকতার সম্মুখীন। আড়ংয়ে স্পেশালি জব করার ইচ্ছক জাগার পিছনে কারণ ছিল আম্মুকে সারপ্রাইজ দেওয়া।

সবশেষে ইমরান বলেন- ইসলাম হচ্ছে শান্তির ধর্ম, পরিপূর্ণভাবে প্রবেশ করতে পারলে আমার মত স্মাইল করতে পারবেন সিরিয়াসলি। আমার হাসিটা ভেতর থেকে আসছে, সকলকে অসংখ্য ধন্যবাদ। আসসালামু আলাইকুম।

ফেসবুকে লাইক দিন