আলজাজিরার প্রতিবেদন প্রমাণ করে দেশে লুটপাটের রাজনীতি চলছে

ইমান২৪.কম: রাজনৈতিক ছত্রচ্ছায়ায় দেশে ব্যাপক লুটপাট চলছে। দেশের সম্পদ লুটপাট করে কে কত টাকা বিদেশে পাচার করতে পারে তার প্রতিযোগিতা চলছে। এক ধরণের অরাজকতা বিরাজমান সবসময়। নাগরিক অধিকার ও ভোটের অধিকার কেড়ে নেয়া হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর নায়েবে আমীর মুফতী সৈয়দ মুহাম্মদ ফয়জুল করীম শায়খে চরমোনাই।

তিনি বলেন, দেশের প্রধানমন্ত্রী ও সেনাপ্রধানকে জড়িয়ে আল জাজিরায় যে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে তা শিঁউরে ওঠার মতো। কিন্তু সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এ প্রতিবেদন ভুঁয়া। তাহলে দলীয় নেতা মির্জা কাদের যে বক্তব্য দিয়েছেন তাও কী ভুয়া? আলজাজিরার প্রতিবেদনে যে ধরনের অপরাধ চক্র গড়ে ওঠার কথা বলা হয়েছে এবং সেখানে যাদের দিকে আঙ্গুল তোলা হয়েছে, তা রীতিমতো আতঙ্কিত হওয়ার মত।

সোমবার ৮ ফেব্রয়ারি বিকেলে রাজধানীর মুহাম্মদপুরস্থ তুরাগ সম্মিলণী অডিটরিয়ামে ইসলামী যুব আন্দোলন ঢাকা মহানগর উত্তর-এর নগর যুব কনভেনশনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। মহানগর উত্তর সভাপতি মুহাম্মদ আবু তালহার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কনভেনশনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ইসলামী আন্দোলনের যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা গাজী আতাউর রহমান, সহকারি মহাসচিব মাওলানা শেখ ফজলে বারী মাসউদ।

মুফতী সৈয়দ ফয়জুল করীম বলেন, প্রতিবেদনের সব দাবির যথার্থতা নিয়ে প্রশ্ন থাকলেও এর অনেক সমীকরণের বাস্তবতা আছে। বিশেষত বিগত দুই দুইটা জাতীয় নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সমীকরণের বাস্তবতা দেশের মানুষ নিজ চোখেই দেখেছে।

তিনি বলেন, এ ধরণের একটি রিপোর্টে জাতি হিসেবে আমরা লজ্জিত ও অপমানিত। বিশ্বে আমাদের চরমভাবে হেয় করা হয়েছে। তিনি সরকারকে উদ্দেশ্য করে বলেন, আল জাজিরার বক্তব্য মিথ্যা প্রমাণ করার দায়িত্ব সরকারের। কিন্তু সরকার কী এ প্রতিবেদন মিথ্যা প্রমাণ করতে পারবেন? কখনো পারবেন না। তিনি আরও বলেন, দেশের সার্বিক অবস্থা ভাল নয়। ভালবাসা দিবসের নামে অশ্লীলতা ও বেহায়াপনার মহড়া চলছে, ফলে নারী ধর্ষণ ও নির্যাতনের সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে। অবাধ স্বাধীনতার নামে যৌনতা, বেহায়াপনাকে বিভিন্নভাবে উস্কে দেওয়া হচ্ছে।

এভাবে নারী নির্যাতন বন্ধ করা যাবে না। নারী নির্যাতন বন্ধ করতে হলে এবং নারীদের অধিকার প্রতিষ্ঠা করতে হলে কুরআন বর্ণিত অধিকার ফিরিয়ে দিলে দেশে নারী নির্যাতন থাকবে না। নগর যুব কনভেনশনে প্রধান বক্তা ছিলেন যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সভাপতি যুবনেতা মাওলানা মুহাম্মদ নেছার উদ্দিন । সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন শায়খুল হাদীস মাওলানা মকবুল হোসাইন, ঢাকা মহানগর উত্তর সেক্রেটারী মাওলানা আরিফুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মুহাম্মদ মুরাদ হোসেন, এডভোকেট শওকত আলী হাওলাদার।

উপস্থিত ছিলেন ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ-এর কেন্দ্রীয় দফতর সম্পাদক মাওলানা লোকমান হোসাইন জাফরী, ইসলামী যুব আন্দোলনের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক (মোমেনশাহী বিভাগ) মুফতি সিরাজুল ইসলাম, মানবাধিকার সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার এহতেশামুল হক পাঠান, ঢাকা মহানগর উত্তর সাবেক সভাপতি নুরুল ইসলাম নাঈম, সাবেক সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার মুরাদ হোসেন প্রমুখ।

ফেসবুকে লাইক দিন