আফগানিস্তানে শতাধিক হাফেজ হত্যার প্রতিবাদে ঢাকায় হেফাজতের বিক্ষোভ ১৩ এপ্রিল

আফগানিস্তানের কুন্দুস প্রদেশে মাদরাসায়ে উমরিয়্যাহ এর হাফেজ ছাত্রদের সনদ প্রদান ও দস্তারবন্ধী অনুষ্ঠান চলাকালে গত ৪ এপ্রিল সন্ত্রাসী ন্যাটো বাহিনীর বিমান হামলায় শতাধিক আফগান নিরীহ শিশু-কিশোর হাফেজে কুরআন শাহাদাত বরণ করেছেন। এই বর্বরতম হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে আগামী ১৩ এপ্রিল শুক্রবার বাদ জুমা বায়তুল মোকাররমের উত্তর গেইটে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের ঢাকা মহানগরী শাখার উদ্যোগে এক বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ  অনুষ্ঠিত হবে।

উক্ত সমাবেশ ও বিক্ষোভ মিছিল সফল করার জন্য সর্বস্তরের ওলামায়ে কেরাম ও তৌহিদী জনতার প্রতি আহবান জানিয়ে সংবাদপত্রে এক যুক্ত বিবৃতি দিয়েছেন, হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমীর, জামিয়া আহলিয়া দারুল উলুম হাটহাজারীর মহাপরিচালক শায়খুল ইসলাম আল্লামা শাহ আহমদ শফী ও মহাসচিব আল্লামা হাফেজ জুনায়েদ বাবুনগরী।

বিবৃতিতে হেফাজত নেতৃদ্বয় বলেন, বিশ্বসন্ত্রাসী আমেরিকা ও তাদের দোসররা আফগানিস্তান, সিরিয়া, ফিলিস্তিন, কাশ্মীর, আরকানসহ বিশ্বব্যাপী মুসলিম নারী শিশু ও নিরাপরাধ মুসলমানদের ওপর নির্মম হত্যাকান্ড চালিয়ে ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করতে চায়। এই জালিমরা এত নিষ্ঠুর যে, আফগানিস্তানের নিষ্পাপ শিশু হাফেজদের অনুষ্ঠানে বর্বরতম হত্যাকান্ড চালাতেও তাদের বিবেকে বাধেনি। জাতিসংঘের মানবাধিকার আইনে শিশু হত্যা চরম অপরাধ। অথচ মানবতার কথা বলে, নির্লজ্জভাবে এরা মানবাধিকার হরণ করে চলেছে।

তারা আরও বলেন, মাসুম হাফেজে কুরআন হত্যাকারীদের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে না তুললে ইহুদী খ্রিস্টান সাম্রাজ্যবাদী গোষ্ঠী মুসলিম উম্মাহর বিরুদ্ধে ক্রুসেড ঘোষণা করবে। তারা প্রশ্ন করে বলেন, কি অপরাধ ছিল এই নিষ্পাপ শিশু হাফেজদের? এত ব্যাপক শিশু হত্যা করার পরও জাতিসংঘসহ বিশ্ব নেতৃবৃন্দ নিরব দর্শকের ভুমিকা পালন করছে কেন? মুসলিম রাষ্ট্র নেতাদের মানবতাবোধ কোথায় হারিয়ে গেল। ও আই সি, আরব লীগ বোবা হয়ে বসে আছে।

মানবাধিকারের কথা বলে ইহুদী খ্রিস্টান সাম্রাজ্যবাদী শক্তি মুসলমানদের রক্ত নিয়ে হোলি খেলায় মেতে উঠেছে। এরা মানবতার চরম দুশমন। বহুদিন থেকে আফগানের মাটিতে মুসলমানদের রক্তের বন্যা বয়ে চলেছে। আফগান মুসলমানদের হাতে সোভিয়েত ইউনিয়নের পতন হয়েছে, বর্তমান বিশ্বসন্ত্রাসী মার্কিন বাহিনীরও পতন হবে ইন শা আল্লাহ। তারা আফগানিস্তানে আলেম, হাফেজ ও মুসলমানদের শাহাদাতের রক্তের প্রতিশোধ নিতে মুসলিম উম্মাহকে ঐক্যবদ্ধ হওয়ার আহবান জানান। এই বর্বরতম হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে বিশ্বনেতৃবৃন্দকে কঠোর সিদ্ধান্ত গ্রহন করারও আহবান জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন