সালিসে ঘুষি মেরে চেয়ারম্যানের নাক ফাটালেন চা দোকানদার

ইমান২৪.কম: লালমনিরহাটের কালীগঞ্জ উপজেলার মদাতী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে ঘুষি মেরে নাক ফাটিয়ে দিয়েছেন নেছার উদ্দিন (৪৫) নামে এক চায়ের দোকানদার।

এ ঘটনায় ওই চায়ের দোকানদারকে আটক করেছে পুলিশ। বুধবার (২৮ অক্টোবর) দুপুরে ওই ইউনিয়ন পরিষদে একটি সালিসে চলাকালে এই ঘটনা ঘটে। হামলাকারী চায়ের দোকানদার নেছার উদ্দিন ওই ইউনিয়নের বাবুডাঙ্গা এলাকার ছকমাল হোসেনের পুত্র।

চেয়ারম্যানের নাক ফাটিয়ে দেয়ার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ মানুষ ওই চায়ের দোকান আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, দীর্ঘদিন ধরে নেছার উদ্দিনের সাথে তার ভাই ইয়াকুব আলীর জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিল।

ওই ঘটনায় ইয়াকুব আলী বাদী হয়ে মদাতী ইউনিয়ন পরিষদে একটি অভিযোগ দেন। অভিযোগের ভিত্তিতে ওই ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাদের চায়ের দোকানদার নেছার উদ্দিনের জমি সংক্রান্ত একটি সালিস করে দিয়ে ১ লাখ ২০ হাজার টাকায় বিষয়টি মীমাংসা করে দেন।

মঙ্গলবার ওই টাকা চেয়ারম্যান এর মাধ্যমে নেছার আলীকে দেয়ার কথা থাকলেও সেটি দেননি। বুধবার দুপুর আড়াইটার দিকে অপর আরেকটি সালিস চালাকালে নেছার আলী ওই বিষয়ে চেয়ারম্যানকে দেখে নেয়ার হুমকি দেন। এরই একপর্যায়ে দুজনের মধ্যে কথা-কাটাকাটি শুরু হলে নেছার উদ্দিন চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরকে কিল-ঘুষি মারতে থাকেন।

এতে চেয়ারম্যান আব্দুল কাদেরের নাক ফেটে রক্ত বের হয়। এ সময় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যরা এগিয়ে এসে আহত অবস্থায় চেয়ারম্যানকে উদ্ধার করে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স হাসপাতালে ভর্তি করেন।

খবর পেয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী (ইউএনও) কর্মকর্তা রবিউল হাসান পুলিশসহ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করেন। চেয়ারম্যানের নাক ফাটিয়ে দেয়ার ঘটনায় বিক্ষুব্ধ মানুষজন নেছার উদ্দিনের চায়ের দোকান আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার রবিউল হাসান জানান, তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে চেয়ারম্যানের ওপর হামলা এটা মেনে নেয়া যায় না। অবশ্যই তদন্ত করে আইনি ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে জানান।

ফেসবুকে লাইক দিন